শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১২:৪১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
সংবাদ শিরোনাম
কুষ্টিয়ায় কিশোর গ্যাং লিডার সুরুজের ছুরিকাঘাত কুষ্টিয়ায় নির্বাচনত্তোর সহিংসতায় আ’লীগ নেতার পিস্তলে গুলিবিদ্ধ-২ নড়াইলের কলোড়া ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত জাতীয় মানবাধিকার অ্যাসোসিয়েশন বগুড়া জেলা কমিটির উদ্যোগে ইফতার মাহফিল কুষ্টিয়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের চিত্র পাল্টে গেছে নওয়াপাড়া পৌরসভার কর্মচারীসহ ৫জনের নামে থানায় অভিযোগ দায়ের করলেন পৌর মেয়র যশোরের অভয়নগরে সাংবাদিক মোঃ আবুল বাসার এর ওপর সন্ত্রাসী হামলা থানায় অভিযোগ অসহায় শারীরিক প্রতিবন্ধী কোহিনুরের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে দিতে ইউপি চেয়ারম্যানের সঙ্গে সাক্ষাৎ নওয়াপাড়া প্রেসক্লাবের বার্ষিক বনভোজন ও মিলন মেলা অনুষ্ঠিত দৈনিক লিখনী সংবাদ পত্রিকার বার্ষিক বনভোজন অনুষ্ঠিত
ঘোষণা:
পরিবর্তনের অঙ্গীকারে আপনাকে স্বাগতম। সময়ের বহুল প্রচারিত বস্তুনিষ্ঠ ও নির্ভরযোগ্য  ভিন্নধারার নিউজ পোর্টাল "পরিবর্তনের অঙ্গীকার"। অতি অল্প দিনে পাঠক নন্দিত হয়ে উঠেছে। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের লক্ষে কাজ করছে এক ঝাঁক তরুণ, মেধাবী ও অভিজ্ঞ সংবাদকর্মী। দেশ-বিদেশের সকল খবরাখবর কারেন্ট আপডেট জানাতে দেশের জেলা, উপজেলা এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে সংবাদ প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে।  ছবিসহ জীবন বৃত্তান্ত (সি ভি)পাঠাতে হবে। ই-মেইল: khalidsyful@gmail.com , মোবাইল : ০১৮১৫৭১৭০৩৪

ধরাছোয়ার বাইরে অভিযুক্ত শিক্ষক কুষ্টিয়ায় যৌন হয়রানীর শিকার কলেজ শিক্ষার্থী, নিরাপত্তাহীনতায় পরিবার

কুষ্টিয়া অফিস // নিজস্ব প্রতিনিধি / ১৪৬ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১ ফেব্রুয়ারী, ২০২২, ৯:৪৪ অপরাহ্ন

ধরাছোয়ার বাইরে অভিযুক্ত শিক্ষক কুষ্টিয়ায় যৌন হয়রানীর শিকার কলেজ শিক্ষার্থী, নিরাপত্তাহীনতায় পরিবার

কুষ্টিয়ায় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় গৃহীত অনার্স ৪র্থ বর্ষের পরিক্ষা দিতে এসে সংখ্যালঘু পরিবারের এক কলেজ শিক্ষার্থী ওই পরিক্ষা হলের দায়িত্ব পালনকারী শিক্ষক রাকিবুল হাসান রাকিব নামের এক শিক্ষক কর্তৃক যৌন হয়রানীর শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এঘটনায় ওই শিক্ষার্থী কলেজ কতৃপক্ষের বরাবর লিখিত অভিযোগ করেও কোন প্রতিকার পাননি বলে অভিযোগ ওই পরিবারের। এছাড়া ঘটনার সুনির্দিষ্ট লিখিত অভিযোগ থাকলেও অভিযুক্ত ওই শিক্ষক এখনও ধরাছোয়ার বাইরে এবং তার অনুসারীদের মাধ্যমে নানা ভাবে হুমকি, ভয়ভীতি দেয়ায় চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন ওই শিক্ষার্থীর সংখ্যালঘু পরিবার।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ১৯ জানুয়ারী, ২০২২ তারিখে কুষ্টিয়া ইসলামিয়া কলেজের পরীক্ষা কেন্দ্রে ২০২০ সালের অনার্স ৪র্থ বর্ষের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষা শেষের দিকে ওই কক্ষে দায়িত্বপালনকারী শিক্ষক মো: রকিবুল ইসলাম ওই শিক্ষার্থীকে ভয়ভীতি প্রদর্শনসহ কৌশলে একটি নির্জন কক্ষে নিয়ে যান এবং সেখানে শিক্ষক রাকিবুল ওই শিক্ষার্থীর সাথে স্পর্শকাতর আচরণের চেষ্টাকালে শিক্ষার্থী বাধা প্রদান করেন। একপর্যায়ে শিক্ষার্থী জোড়পূর্বক ওই কক্ষ থেকে বেড়িয়ে সরাসরি শিক্ষার্থী তার নিজ কলেজ কুষ্টিয়া সরকারী কলেজের অধ্যক্ষের দপ্তরে গিয়ে সব খুলে বলেন এবং বিচার দাবি করে লিখিত অভিযোগ জমা দেন অধ্যক্ষ প্রফেসর কাজী মনজুর কাদিরের কাছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন কুষ্টিয়া সরকারী কলেজের উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক আনছার আলী। তিনি বলেন, পরীক্ষার হলে ছাত্রী হয়রানির ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেয়ে ঘটনার প্রতিকার চেয়ে ওই অভিযোগের কপি সংযোজনসহ ঘটনাস্থল কুষ্টিয়া ইসলামি কলেজের অধ্যক্ষ মো: নওয়াব আলী এবং কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ও কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত পত্র প্রেরণ করেছি। পরে শুনেছি ওই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তবে শিক্ষক কর্তৃক ছাত্রী যৌন হয়রানীর মতো ঘটনায় কেবলমাত্র সাময়িক বাহিষ্কারই দৃষ্টান্তমূলক উদাহরণ নয়। আমরা ওই ছাত্রীর পরিবারের সাথে কথা বলেছি, উনারা সরাসরি মামলা করতে রাজি হননি। শুনেছি মামলা না করার জন্য তাদের উপর ভয়ভীতি প্রদর্শন ও চাপ সৃষ্টি করা হয়েছে।

এবিষয়ে ঘটনাস্থল কুষ্টিয়া ইসলামীয়া কলেজের অধ্যক্ষ মো: নওয়াব আলীর সাথে আলাপকালে তিনি জানান, “কুষ্টিয়া সরকারী কলেজের অধ্যক্ষের দপ্তর থেকে প্রেরিত পত্রে অভিযোগ পাওয়ার পর অভিযুক্ত ওই শিক্ষককে কারণ দর্শানো নোটিশ ইস্যু করেছি। অভিযুক্ত শিক্ষক রাকিবুল ইসলাম কারণ দর্শানো নোটিশের জবাব দিয়েছেন। এবিষয়ে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন আছে”।

এবিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক রাকিবুল ইসলামের সাথে মুঠোফোনে আলাপকালে তিনি বলেন, “আসলে ঘটনা কিছুই না; একটু ভুল বুঝাবুঝি হয়েছিলো মাত্র। পরে আমরা নিজেরা বসে ঠিক করে নিয়েছি”। কি ভুল বুঝাবুঝি হয়েছিলো জানতে চাইলে তিনি বলেন, “কুষ্টিয়া শহরের আমলাপাড়াস্থ আমার কোচিং সেন্টার বাবদ এক সাংবাদিক কিছু চাঁদা দাবি করেছিলো, সেটা না দেয়াতে ওই সাংবাদিক এই নিউজ ছেপেছিলো। পরে সব ঠিক হয়ে গেছে”। তাছাড়া এবিষয়ে কেউ কোন লিখিত অভিযোগও করেননি বলে দাবি করেন অভিযুক্ত শিক্ষক রাকিবুল ইসলাম।

যৌন হয়রানির শিকার ওই শিক্ষার্থীর পরিবারের পক্ষ থেকে করা অভিযোগ, কুষ্টিয়া ইসলামি কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক রাকিবুল ইসলামের নিজস্ব কিছু দালাল ছাত্রীদের মাধ্যমে নিরীহ সাধারণ ছাত্রীদের ফুসলিয়ে ফাঁদে ফেলে এভাবে সর্বনাশ করে আসছে। সমাজ বাস্তবতায় এমন যৌন হয়রানির শিকার হয়েও অধিকাংশ ক্ষেত্রে কেউ মুখ খুলতে চান না। সেজন্য এসব ঘটনার কোন প্রতিকারও হয়না। খৃষ্টান সম্প্রদায়ের ভুক্তভোগী ওই ছাত্রীর পিতা পল্লি চিকিৎসক আক্ষেপ করে এসব বলছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর