মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৭:৫৮ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা:
পরিবর্তনের অঙ্গীকারে আপনাকে স্বাগতম। সময়ের বহুল প্রচারিত বস্তুনিষ্ঠ ও নির্ভরযোগ্য  ভিন্নধারার নিউজ পোর্টাল "পরিবর্তনের অঙ্গীকার"। অতি অল্প দিনে পাঠক নন্দিত হয়ে উঠেছে। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের লক্ষে কাজ করছে এক ঝাঁক তরুণ, মেধাবী ও অভিজ্ঞ সংবাদকর্মী। দেশ-বিদেশের সকল খবরাখবর কারেন্ট আপডেট জানাতে দেশের জেলা, উপজেলা এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে সংবাদ প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে।  ছবিসহ জীবন বৃত্তান্ত (সি ভি)পাঠাতে হবে। ই-মেইল: khalidsyful@gmail.com , মোবাইল : ০১৮১৫৭১৭০৩৪

বাংলাদেশে সুশাসন আজ কবরে: ডা. জাফরুল্লাহ

ঢাকা অফিস / / ৬৪ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : বুধবার, ২ জুন, ২০২১, ১১:৪২ অপরাহ্ন

গণস্বাস্থ্যের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, দেশে আজকে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে হবে। গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা মানেই এক দিনের ভোট না। গণতন্ত্রই হচ্ছে দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করা। বাংলাদেশে সুশাসন আজ কবরে। বুধবার (২ জুন) দুপুরে রাজধানীর পুরানো পল্টনস্থ ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরাম হলে ‘সুশাসনে গণতন্ত্রের বিকল্প নেই’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, আজকে নারীরা রাস্তায় বেরিয়ে না আসলে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হবে না। সবাইকে মেয়েদেরকে সমান চোখে দেখতে হবে। নারীদের যদি আপনার সমান চোখে না দেখেন তাহলে বাংলাদেশে কখনো গণতন্ত্র আসবে না। সবাইকে জিনিসটা মাথায় রাখতে হবে যে আমাদের ছেলেরা যে সুবিধাটা পাবে আমাদের মেয়ে ঠিক যেমন তেমন সুবিধা পাবেন। একজন নারী তো আমাদের শাসন করছেন। আর একজন নারীতো জেলেও আছেন।তিনি বলেন, জালেমের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে হবে জালিমদের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলতে হবে। সবাই বলে ভারতের সঙ্গে আমাদের রক্তের সম্পর্ক মশার সঙ্গে আমাদের রক্তের সম্পর্ক রয়েছে। ভারত স্বাধীনতা যুদ্ধে আমাদের সহযোগিতা করেছে এজন্য আমরা তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। কিন্তু স্বাধীনতার প্রথম বছরে তারা আমাদের জন্য যা খরচ করে এসব গুলো তুলে নিয়েছে।বঙ্গবন্ধু এদেশে গণতন্ত্রকে হত্যা করেছেন মন্তব্য করে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু আমাদের প্রাণের মানুষ। প্রাণের মানুষ বলেই অনেক সময় ভুল করেন তিনি। বঙ্গবন্ধুর জীবনের বড় ভুল যে তিনি গণতন্ত্রকে কবর দিয়েছেন। তিনি গণতন্ত্রের জন্য জীবন দিয়েছেন, এর জন্য বছরের পর বছর জেল খেটেছেন। সারা দেশব্যাপী মানুষকে জাগ্রত করেছেন। কিন্তু শেষ মুহূর্তে তিনি ভারতীয়দের প্ররোচনায় ওনার শখ হয়েছিল ওনার আজীবনের জন্য প্রেসিডেন্ট হওয়ার। যেটা গণতন্ত্র হত্যার শামিল। যারা আজকে হাসিনাকে তাল দিচ্ছে, দেশ জননী বানাচ্ছে, কওমী জননী বানাচ্ছে, তারা বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর দেশ ছেড়ে পালিয়েছিলো।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর