সংবাদ শিরোনাম
সংবাদ শিরোনাম
কুষ্টিয়ায় ব্রাজিলের পতাকা টাঙাতে গিয়ে মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যু কুষ্টিয়ায় অর্থ আত্মসাতের দায়ে সরকারী কর্মকর্তা কর্মচারীর  কারাদণ্ড  কুষ্টিয়ায় রঙ দিয়ে তৈরি হচ্ছে আখেঁর গুড়, ২ জনের জরিমানা অদক্ষতা-অনিয়মে অনিশ্চিত ইবি উন্নয়ন প্রকল্প কুষ্টিয়ায় ভুয়া এনআইডিতে  অন্যের জমি রেজিষ্ট্রি   কুষ্টিয়ায় জঙ্গীবাদ বিরোধী দিবসে বাউলদের উপর হামলা ও সাম্প্রদায়িক উগ্রবাদী তৎপরতার প্রতিবাদে মানববন্ধন আমলায় শেখ কামাল স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় কামারুল আরেফিন কুমারখালীতে বাড়ির আঙিনায়  গাঁজার চাষ, চাষী আটক কুষ্টিয়ায়  প্রেমে ব্যর্থ হয়ে স্কুল ছাত্রের আত্মহত্যার অভিযোগ কুষ্টিয়ায় ফুল ব্যবসায়ীর রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার
ঘোষণা:
পরিবর্তনের অঙ্গীকারে আপনাকে স্বাগতম। সময়ের বহুল প্রচারিত বস্তুনিষ্ঠ ও নির্ভরযোগ্য  ভিন্নধারার নিউজ পোর্টাল "পরিবর্তনের অঙ্গীকার"। অতি অল্প দিনে পাঠক নন্দিত হয়ে উঠেছে। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের লক্ষে কাজ করছে এক ঝাঁক তরুণ, মেধাবী ও অভিজ্ঞ সংবাদকর্মী। দেশ-বিদেশের সকল খবরাখবর কারেন্ট আপডেট জানাতে দেশের জেলা, উপজেলা এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে সংবাদ প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে।  ছবিসহ জীবন বৃত্তান্ত (সি ভি)পাঠাতে হবে। ই-মেইল: khalidsyful@gmail.com , মোবাইল : ০১৮১৫৭১৭০৩৪

মাদক সম্রাজ্ঞী উল্কার ভাবীর আত্মহত্যা, যৌতুকের দাবিতে নির্যাতন করতো স্বামী ও তার পরিবার!

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১৫৩ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : সোমবার, ৪ জুলাই, ২০২২, ১০:৩৭ অপরাহ্ন

মাদক সম্রাজ্ঞী উল্কার ভাবীর আত্মহত্যা, যৌতুকের দাবিতে নির্যাতন করতো স্বামী ও তার পরিবার!

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার খয়েরচারা গ্রামে বহুল সমালোচিত মাদক সম্রাজ্ঞী উল্কার ভাবী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। গৃহবধূর বাবার দাবী তার মেয়েকে আত্মহত্যা করতে বাধ্য করা হয়েছে।

রোববার রাত ১১ টার দিকে স্বামীর বাড়ির শয়ন কক্ষের সিলিং ফ্যান থেকে তার ঝুলন্ত গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

মৃত গৃহবধূ কুষ্টিয়া সদর থানার মোল্লা তেঘড়িয়া গ্রামের আবুল কালামের মেয়ে কাজলী খাতুন (২৪)।

কাজলী খাতুনের বাবা আবুল কালাম জানান, ৪ বছর পূর্বে কুমারখালীর খয়েরচারা গ্রামের কুদ্দুসের ছেলে রাজিবের সাথে পারিবারিক ভাবে তার মেয়েকে বিয়ে দেন। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের দাবিতে তার মেয়েকে নির্যাতন করতো রাজিব ও তার পরিবার। গত ২ দিন আগে তার মেয়ে কাজলী ফোনে তাকে জানায় রাজীবের জন্য সেলুনের দোকান কিনতে ২ লাখ টাকার প্রয়োজন। তিনি ঈদের পর এনজিও থেকে লোন তুলে টাকা দেবার আশ্বাস দেন মেয়েকে। এরই মধ্যে রোববার রাত ১১ টার দিকে রাজিব তাকে ফোনে কাজলীর অবস্থা খুব খারাপ বলে জানায় এবং দ্রুত কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসতে বলে। তিনি হাসপাতালে এসে তার মেয়ের মরদেহ দেখতে পান।

তিনি আরো বলেন, রাজীব নিজেকে অবিবাহিত বলে আমার মেয়েকে বিবাহ করে। ঘটকের মাধ্যমে মেয়ের বিয়ে দেওয়া হয়। তখন খুব বেশি খোঁজখবর নেওয়া হয়নি। ওর একটা বোন কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী। ওঁরা আমার মেয়েকে এর আগেও যৌতুকের টাকার জন্য নির্যাতন করে আমার বাড়ি পাঠিয়ে দিয়েছে।
তিনি দাবী করেন রাজিব ও তার পরিবারের লোকজন মেয়েকে মেরে ঝুলিয়ে রেখেছে। তিনি বিচার দাবী করেন।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, রাজীব ও তার বোন উল্কা কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী উক্লা। কাজলীর দুই বছরের একটা শিশু সন্তান রয়েছে।

এ বিষয়ে কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট আসার পর প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে। এ ব্যাপারে ইউডি মামলা হয়েছে।

সম্প্রতি বেড়েছে আত্মহত্যার ঘটনা। পারিবারিক কারণ থেকে শুরু করে স্কুলশিক্ষার্থীরাও হত্যার মতো জঘন্য কাজটি করছে।আত্মহত্যা মহাপাপ বিষয়টি আমরা জানি। তবে মানুষ যখন নিজের ওপর পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে তখন আত্মহননের পথটি বেছে নেয় বলে মনে করেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞরা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর