মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৪:২৭ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা:
পরিবর্তনের অঙ্গীকারে আপনাকে স্বাগতম। সময়ের বহুল প্রচারিত বস্তুনিষ্ঠ ও নির্ভরযোগ্য  ভিন্নধারার নিউজ পোর্টাল "পরিবর্তনের অঙ্গীকার"। অতি অল্প দিনে পাঠক নন্দিত হয়ে উঠেছে। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের লক্ষে কাজ করছে এক ঝাঁক তরুণ, মেধাবী ও অভিজ্ঞ সংবাদকর্মী। দেশ-বিদেশের সকল খবরাখবর কারেন্ট আপডেট জানাতে দেশের জেলা, উপজেলা এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে সংবাদ প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে।  ছবিসহ জীবন বৃত্তান্ত (সি ভি)পাঠাতে হবে। ই-মেইল: khalidsyful@gmail.com , মোবাইল : ০১৮১৫৭১৭০৩৪

কুষ্টিয়া সদর উপজেলা বিএনপির নবগঠিত কমিটি প্রত্যখ্যান করে সংবাদ সম্মেলন।

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৭৭২ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০২১, ৩:৩৫ অপরাহ্ন

কুষ্টিয়া জেলা বিএনপি’র সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের ব্যক্তি ইচ্ছায় সার্বিক আলোচনা বিহীন এবং বিধিবহির্ভূত পন্থায় কুষ্টিয়া সদর উপজেলা বিএনপি’র মনগড়া ও একপেশে আহবায়ক কমিটি গঠনের প্রতিবাদে উপজেলা বিএনপি নেতৃবৃন্দের সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত।

অঙ্গীকার ডেস্ক :

আজ কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব মিলনায়তনে কমিটি বালিতের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সংবাদ সম্মেলনে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান ও সদর থানা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন মুরাদ বক্তব্য উপস্থাপন করেন তিনি বলেন-

৩ ই ডিসেম্বর ২০২১ ইং কুষ্টিয়া সদর উপজেলা বিএনপি’র আহবায়ক কমিটি গঠনের সংবাদে আমরা জানতে পায়।বিষয়টি জেনে হতবাক ও বিস্মিত হয়েছি, কারণ কোনরূপ পূর্ব আলোচনা ছাড়া সম্পন্ন ব্যক্তি বা গোষ্ঠী স্বার্থ উদ্ধারের অপচেষ্টায় দলের এই দুঃসময়ে ঐক্য বিনষ্টকারী এইরূপ কর্মকাণ্ড তাদের অগণতান্ত্রিক ও স্বেচ্ছাচারী মনোভাবের বহিঃপ্রকাশ বলে আমরা মনে করি। ত্যাগীদের সমন্বয়ে সবাইকে নিয়ে পথ চলার দল ঘোষিত নীতির পরিপন্থী নিজ পছন্দের এইরূপ মনগড়া কমিটি গঠনের আমরা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। কারণ কোন কমিটি বাতিল করে আহবায়ক কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে হলে সর্বপ্রথম দলের জেলা কমিটির সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা প্রয়োজন। দ্বিতীয়তঃ সংশ্লিষ্ট কমিটিতেও সিদ্ধান্ত গ্রহণে আলোচনা আবশ্যক। আমরা জোর দিয়ে বলতে পারি এই রুপ কোনো আলোচনা বা সিদ্ধান্ত কখনই হয়নি। তাছাড়া আমরা খোঁজ নিয়ে জানতে পারলাম কুষ্টিয়া সদর নির্বাচনী আসনের বিগত নির্বাচনে দল ঘোষিত মনোনীত প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার জাকির হোসেন সরকারের সাথেও কমিটি গঠন বিষয়ে নূন্যতম কোন আলোচনা করা হয়নি। তদ্রুপ কুষ্টিয়া সদর উপজেলা কমিটির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হিসাবে আমাকেও কিছু অবহিত করা হয়নি। আহ্বায়ক কমিটি গঠনের যুক্তিকতা প্রমাণের জন্য কমিটির মেয়াদ উত্তীর্ণ ও কমিটির নিষ্ক্রিয়তার কথা বলা হয়েছে, অথচ হাস্যকরভাবে তাদের বলা নিষ্ক্রিয় কমিটির সভাপতিকে আবারো আহ্বায়ক করার পাশাপাশি নিষ্ক্রিয় কমিটির দুই নম্বর সাংগঠনিক সম্পাদক ক্ষমতাসীনদের সাথে ব্যবসায়িক আঁতাতকারীকে সদস্য সচিব করা হয়েছে। তা ছাড়াও বহু পূর্বেই মেয়াদ উত্তীর্ণ কুষ্টিয়া জেলা বিএনপি’র সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক কোন নৈতিকতায় অন্য কোনো মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারে সেটাও আমাদের বোধগম্য নয়। এমত অবস্থায় আমরা সংশ্লিষ্ট নেতৃবৃন্দ কে অনুরোধ করব দল বিরোধী ঐক্য বিরোধী সংগঠনের ক্ষতিকারক এইরকম কোন পদক্ষেপ থেকে বিরত থাকতে। পরিশেষে আমরা কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির হঠকারী নেতৃত্বের হাত থেকে দলকে রক্ষা ও মাঠকর্মীদের ন্যায় বিচার প্রাপ্তির নিশ্চয়তা বিধানের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য বিনীতভাবে দলের সম্মানিত ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়ক জনাব তারেক রহমান এবং সম্মানিত মহাসচিব জনাব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।
উক্ত সংবাদ সম্মেলন উপস্থিত ছিলেন -সদর উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর